হাত ছাড়াই হাতের লেখায় সেরা

৭ বছরের ছোট্ট বালিকা আনায়া ইলিক। তার বন্ধুরা যা করতে পারে, তার সবগুলো সে হয়তো করতে পারে না। কিন্তু সে যা করে দেখিয়েছে, তা কী সবাই পারে? হাত ছাড়াই হাতের লেখায় সেরা হয়েছে আনায়া।
যুক্তরাষ্ট্রে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জাতীয় হাতের লেখা প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে সুন্দর হাতের লেখার দরুন নিকোলাস ম্যাক্সিম স্পেশাল অ্যাওয়ার্ড জিতে নিয়েছে।
জন্ম থেকেই দুটো হাত নেই আনায়ার। কনুইয়ের খানিকটা পর থেকে হাতের বাকি অংশটা নেই। পড়ালেখায় দারুন ঝোঁক তার, তাই হাত জোড়া না থাকাটা বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি ভার্জেনিয়ার ছোট্ট এই শিশুর কাছে। দুই কনুইয়ের মাঝে পেন্সিল রেখেই গোটা গোটা অক্ষর সুন্দর করে খাতায় ফুটিয়ে তোলে আনায়া।
জাতীয় হাতের লেখা প্রতিযোগিতায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঞ্চলের ৫০ জন প্রতিযোগীর সঙ্গে অংশ নিয়ে আনায়া হাত ছাড়াই সবচেয়ে সুন্দর হাতের লেখা লিখে বিজয়ী হয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংবাদমাধ্যম তার এই সাফল্যের খবর অনুপ্রাণিত করছে অনেককেই।
আনায়া, ভার্জেনিয়ার গ্রিনব্রিয়ার খৃস্টান একাডেমী স্কুলের শিক্ষার্থী। স্কুলটির অধ্যক্ষ ট্রেসি কক্স এবিসি নিউজকে আনায়া প্রসঙ্গে বলেন, ‘প্রকৃতঅর্থে সে করতে পারে না, এমন কিছু খুব কমই আছে। সে কোনো অজুহাতের দেখানোর পক্ষপাতী নয়, বরঞ্চ কঠোর পরিশ্রমী।’
আনায়ার মা বিয়াঙ্কা মিডলটন বলেন, তার মেয়ে একটি অনুপ্রেরণা। সে কখনো রাগ করে না, অভিযোগ করে না। তার জুতার ফিতা সে নিজে বাধে, পোশাক নিজে পড়ে, তাকে কোনো সাহায্যের প্রয়োজন পড়ে না। খুবই প্রাণবন্ত সে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open