মাত্র পাঁচ হাজার টাকার জন্য ভাইকে ৯ টুকরা করে হত্যা

পাবনা শহরের কৃষ্ণপুর মহল্লার একটি বাসা থেকে সরজ মোল্লা (৩৩) নামের এক যুবকের ৯ টুকরা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় রাহেনুজ্জামান (২৫) নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে।
সরজ মোল্লা কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার নান্দিয়াপাড়া গ্রামের ফারুক মোল্লার ছেলে। তিনি গাজী ট্যাংকের বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে চাকরি করতেন। আটক রাহেনুজ্জামান নিহত সরজের চাচাতো ভাই এবং একই গ্রামের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে।
পাবনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল্লাহ আল হাসান জানান, চাকরির সুবাদে পাবনা শহরের কৃষ্ণপুর মহল্লার জামিল হোসেনের বাসার নিচতলা ভাড়া নেন সরজ মোল্লা। চার-পাঁচ দিন আগে তার কাছে বেড়াতে এসেছিলেন চাচাতো ভাই রাহেনুজ্জামান। মঙ্গলবার সকাল থেকে সরজ মোল্লার কোনো খোঁজ না পেয়ে গাজী ট্যাংক কোম্পানির পাবনার কর্মকর্তারা বিষয়টি পাবনা সদর থানা পুলিশকে জানান।
মঙ্গলবার রাতে রাহেনুজ্জামানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তিনি সরজকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী রাত ১১টার দিকে শহরের কৃষ্ণপুর মহল্লার ভাড়া বাসা থেকে সরজ মোল্লার ৯ টুকরা লাশ উদ্ধার করা হয়।
ওসি আরো জানান, সরজ মোল্লার কাছে কয়েক হাজার টাকা ছিল। এ টাকা নেওয়ার জন্য রাহেনুজ্জামান তাকে হত্যা করে। সোমবার রাত ১১টা থেকে সাড়ে ১১টায় ভাড়া বাসার কক্ষে সরজ মোল্লাকে কুপিয়ে হত্যা করে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open