এবার চাঁদার দাবিতে ৪ স্কুল ছাত্রের উপর পুলিশের অমানুষিক নির্যাতন

বেপরোয়া পুলিশের আচরণ যেন বাগ মানতে চাইছেনা কিছুতেই। আইজিপি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ভাষায় সেই সব বিচ্ছিন্ন ঘটনার মিছিল শুধুই দীর্ঘতর হচ্ছে। এবারকার বিচ্ছিন্ন ঘটনার নায়ক গুলশান থানার পুলিশ কর্মকর্তা এস আই হাবিব। টাকার জন্য চার স্কুল ছাত্রকে থানায় আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে।
শিক্ষার্থীদের স্বজনদের অভিযোগ, মোটা অঙ্কের টাকা দিতে পরিবার ব্যর্থ হওয়ায় স্কুল শিক্ষার্থীদের থানায় আটকে রেখে রাতভর চালানো হয় নির্যাতন।
যেখানে শিশু আইনে, অভিযুক্ত শিশুকে থানার লকাপে রাখারই নিয়ম নেই সেখানে অভিযুক্ত চার স্কুল ছাত্রকে লকাপে আটকে অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়। এমনকি প্রত্যেকের বয়স বাড়িয়ে আদালতে রিমান্ডেরও আবেদন জানানো হয়।
৭১ টিভি তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, মোবাইল ছিনতাইয়ের অভিযোগ তাদের ওপর চালানো বর্বর নির্যাতনের বর্ণনা দেন গুলশান মডেল হাইস্কুলের অভিযুক্ত চার শিক্ষার্থী।
শিক্ষার্থীদের স্বজনরা অভিযোগ করেন ঘটনা মিটমাট করে ফেলার জন্য এস আই হাবিব ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। এছাড়া রিমান্ডে না নেবার জন্য এস আই হাবিব তাদের কাছে টাকাও নিয়েছেন বলে ৭১ টিভির কাছে দাবি করেন এক শিক্ষার্থীর মা।
৭১ টিভির পক্ষ থেকে গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও এস আই হাবিবের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তারা এ বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open