হঠাৎ পানি থেকে ডাঙ্গায় উঠে রোদ পোহাচ্ছে শতশত সাপ

একদল সাপ যেন পুকুর থেকে ডাঙায় উঠে রোদ পোহাচ্ছে। কেউ আবার আশপাশেই সাঁতরে বেড়াচ্ছে। কেউ আবার উঠে পড়েছে গাছের ডালে। কেউ উঠছে আর নামছে। এমনই সাপের গল্প নিয়ে দিনভর মশগুল ভারতের মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জ।
রঘুনাথগঞ্জ মহকুমা শাসকের অফিসের পাশেই একটি পুকুরপাড়ে পৌষের শীত-সকালে ভিড় উপচে পড়ল। আট থেকে আশি সবাই দেখতে চায় সাপ। আসলে এমনভাবে এক সঙ্গে এত সাপের রোদ পোহানো কেউ দেখেনি আগে। পুকুর পারে শয়ে শয়ে মানুষের উপস্থিতিকে অবশ্য পাত্তা না দিয়েই ঠান্ডা জল থেকে ডাঙার গাছে উঠে সাপেরা রৌদ্রস্নান করল ঘণ্টার পর ঘণ্টা।ঘণ্টা চারেকের সূর্যস্নান সেরে অবশ্য সাপ-সাপিনীরা ফিরে যায়। জলের সাপ জলে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, দফায় দফায় প্রায় ২৫-৩০টি সাপ আসে। পুকুরের মধ্যে আধ ডোবা কাঠের গুঁড়ির উপর একে অপরের সঙ্গে লেপ্টে শুয়ে থাকে।
সর্পকুলের সূর্যস্নানের খবর চাউর হতেই কয়েক হাজার উৎসাহী মানুষের ভিড় জমে পুকুর পাড়ে। স্থানীয়দের বক্তব্য অনুযায়ী, রঘুনাথগঞ্জে কয়েকশো পুকুর থাকলেও সর্পকুলের সূর্যস্নানের বিরল দৃশ্য আগেও এই একটি পুকুরেই দেখতে পাওয়া যায়।সর্পকুলের এই বিরল দৃশ্যকে সবাই সূর্যস্নান মানতে নারাজ। স্থানীয় এক সর্প-বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, ওই পুকুরের জলে দূষণের কারণে সাপগুলি জল ছেড়ে দল বেঁধে ডাঙায় উঠে আসে বলে মনে হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open