চা বিক্রেতা দেলোয়ারের স্কুল প্রতিষ্ঠার গল্প

দেলোয়ার হোসেন ডিপটি, পেশায় একজন চা বিক্রেতা। তিনি চা বিক্রি করেন মুন্সীগঞ্জ সদরের সুপার মার্কেট এলাকায়। কিন্তু একজন চা বিক্রেতা হয়েও দেলোয়ার হোসেন একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন।
দরিদ্র রিক্সাচালকের বাবার ঘরে জন্ম নেয়া দেলোয়ার হোসেন বেশিদূর লেখাপড়া করতে পারেননি। কিন্তু শিক্ষার মর্ম তিনি ঠিকই উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন। আর তাই নিজ গ্রামে স্কুল প্রতিষ্ঠার জন্য একাই আন্দোলনে নামেন।
শুরুতে সবাই তাকে নিয়ে হাসি ঠাট্টায় মেতে উঠে কিন্তু তিনি তো থামার পাত্র নন। জেলা শিক্ষ অফিস, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, কমিশনার, এমপি, মন্ত্রী পর্যন্ত ধর্না দিতে থাকলেন দেলোয়ার হোসেন। অনেক লাঞ্চনা, গঞ্জনা শেষে অবশেষে তিনি সফল হন। এলাকার রাজনৈতিক নেতা ও সকল শ্রেনী পেশার মানুষের সহযোগিতায় তিনি প্রতিষ্ঠা করেন হাটলক্ষীগঞ্জ প্রাথমিক বিদ্যালয়।
শুধু এখানেই শেষ নয় তিনি সবসময় সমাজ সচেতন চিন্তা ভাবনা করেন। সাধারন মানুষের মধ্যে সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে চান। দেলোয়ার হোসেন আমাদের চোখে আঙ্গুল দেখিয়ে দিয়েছেন অসম্ভব বলে কিছুই নেই, চাইলেই সম্ভব। শুধু প্রয়োজন ইচ্ছাশক্তি।
দেলোয়ারের মতো আমাদের সমাজে প্রতিটি মানুষ যদি নিজ নিজ অবস্থান থেকে এ সমাজটা পরিবর্তনের চেষ্টা করে তাহলে অবশ্যই আমাদের দেশের চেহারাও একদিন পাল্টে যাবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open