আকাশ থেকে পড়া মানববর্জ্যে আহত বৃদ্ধা!

আকাশ থেকে পড়া ’রহস্যজনক’ বরফের গোলায় আহত হলেন ৬০ বছরের এক নারী। ভারতের মধ্যপ্রদেশের সাগর জেলার আমকোহ গ্রামে গত ১৭ ডিসেম্বর ঘটনাটি ঘটে। সম্প্রতি এটি সংবাদমাধ্যমের নজরে আসে। কিন্তু কোন ঝড়-বৃষ্টি ছাড়া আকাশ থেকে বরফের গোলা আসলো কীভাবে? কপালে ভাঁজ ফেলা প্রশ্নের উত্তর মেলে বিমান পরিবহন বৈজ্ঞানিকদের ব্যাখ্যায়। তারা জানান, আকাশ থেকে পড়া বস্তুটি বরফ নয়, প্লেন থেকে ফেলা বরফীকৃত মানববর্জ্য।
বিশেষজ্ঞদের মতে সেই সময় আমকোহ গ্রামের উপর দিয়ে উড়ে যাওয়া কোনও বাণিজ্যিক প্লেনের টয়লেট থেকেই ওই বরফের গোলা পড়েছে। প্লেনের শৌচাগার থেকে বরফীকৃত মল-মূত্র নিচে ফেলে দেওয়া হয়েছিল। তার ধাক্কাতেই আহত হন রাজরানি গৌড় নামে ওই প্রৌড়া।
রাজরানী গৌড়ের গায়ে লাগার আগে প্রায় ৫০ কেজি ওজনের বরফের গোলাটি তাঁর বাড়ির ছাদে লেগে টুকরো টুকরো হয়ে যায়। না হলে ওই নারীর বেঁচে থাকার কোনও সম্ভাবনাই ছিল না বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। বরফের গোলা পড়ার আওয়াজ ও রাজরানী গৌড়ের চিত্‍কারে ছুটে আসেন পাড়া-প্রতিবেশীরা। আহত বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এই ধরনের ঘটনাকে ’ব্লু-আইস’ বলা হয়ে থাকে। এ দেশে ব্লু-আইসে কারোর আহত হওয়ার ঘটনা এই প্রথম বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ব্লু-আইসেই রাজরানী গৌড় আহত হয়েছেন বলে প্রমাণিত হলে অসামরিক বিমান পরিবহণ আইন অনুযায়ী তিনি ক্ষতিপূরণের দাবিদার। তবে স্থানীয় প্রশাসন এই ঘটনাকে আমল দিতে নারাজ। জেলাশাসক একে সিং জানিয়েছেন যে, এই রকম একটি ঘটনার কথা তাঁর কানে এলেও তিনি গুজব ভেবেছিলেন।
বিমান পরিবহণ বিশেষজ্ঞ বিমল কুমার শ্রীবাস্তবের মতে এই ঘটনা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দিল্লিবাসী বিমল শ্রীবাস্তব বহু বছর ধরেই ব্লু-আইস নিয়ে কাজ করছেন। এই ঘটনার তদন্ত হওয়া প্রয়োজন বলে মনে করছেন তিনি।
উল্লেখ্য এর আগে গত মে’মাসে একি ধরনের ঘটনা ঘটে যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে এক কিশোরীর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে কেক কাটার ঠিক পরেই এমন অনাকাঙ্খিত মল-বৃষ্টি শুরু হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open