বিএনপির সমাবেশ শুরু, খালেদা জিয়া পৌঁছেছেন

কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে বিএনপির সমাবেশ শুরু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুর ২টায় সমাবেশ শুরু হয়। এতে সভাপতিত্ব করছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।
সমাবেশে খালেদা জিয়ার বক্তব্য রাখার কথা রয়েছে। বিকেল পৌনে ৩টার দিকে তিনি সমাবেশস্থলে পৌঁছান।
বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবীর খান বলেন, বিকেল ৩টার দিকে খালেদা জিয়া সমাবেশে ভাষণ দেবেন।
বিএনপি দিনটিকে পালন করছে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে। আর তাই হাতে কালো পতাকা আর মাথায় কালো ফিতা বেঁধে সকাল থেকেই দলে দলে পল্টনের সমাবেশস্থলে গেছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।
সমাবেশ মঞ্চে উপস্থিত আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, ড. আবদুল মঈন খান, রুহুল কবির রিজভী। দলটির বিভিন্ন ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা সমাবেশে যোগ দিয়েছেন।
আজ ৫ জানুয়ারি দিনটিকে বিএনপি পালন করছে ‘গণতন্ত্র হত্যা’ দিবস উপলক্ষে। আর দিবসটি উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের আহ্বান জানানো হয় দলটির পক্ষ থেকে। অন্যদিকে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ উপলক্ষে একই স্থানে একই সময় সমাবেশের আহ্বান জানায় আওয়ামী লীগ। আর এ কারণে শর্তসাপেক্ষে যারা যার কার্যালয়ের সামনে সমাবেশের অনুমতি দেয় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ও ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।
২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিএনপি অংশ নেয়নি। ৩০০ আসনের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ১৫৩ জন সংসদ সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। পরে ৫ জানুয়ারির ভোটের মধ্য দিয়ে দলটি নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের মধ্য দিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসে। অন্যদিকে বিএনপি-জামায়াত জোট তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে ভোট বর্জন করে লাগাতার আন্দোলনের ডাক দেয়। এ আন্দোলন চলাকালে সারা দেশে ব্যাপক হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। ২০১৫ সালেও ৫ জানুয়ারিকে ঘিরে সারা দেশে ব্যাপক নাশকতার ঘটনা ঘটে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open