দেখা মিলল সমুদ্রের নীচে অবিশ্বাস্য আকৃতিতে মাকড়সা (ভিডিও সহ)

সমুদ্রের পানির নীচে সম্প্রতি অবিশ্বাস্য বড় আকৃতির ‘সাগর মাকড়সার’ সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা, যা দেখে তারা নিজেরাই হতভম্ব এবং আতঙ্কিত হয়ে গেছেন। বিজ্ঞানীদের মতে, বৃহদাকার এই মাকড়সাগুলো দেখে অনেকটা দুঃস্বপ্নের মত মনে হচ্ছিল। কারণ এগুলো একটি মানুষের মুখের মত বড়। তবে কেন এটি এত বড় এবং কেন এর শারীরিক গঠন এত বৃদ্ধি হল তা এখনো পর্যন্ত সম্পূর্ণরূপে ব্যাখ্যা করতে পারেননি বিজ্ঞানীরা।
হরর সিনেমা প্রেমীরা প্রজন্মরাও এসব মাকড়সা দেখতে আতঙ্কিত হয়ে ওঠবে, কারণ বিশাল সাইজের এই মাকড়সাগুলো দেখতে খুবই গা গা ছমছম করা এবং এর পাগুলো ও অনেক দীর্ঘ।
ফলে বিজ্ঞানীরা এখন সমুদ্রের প্রাণী তারামাছ ও সাগর শামুক এর মত প্রাণীগুলোর আকৃতি বৃদ্ধি নিয়ে পরিবর্তনশীল প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ার ওপর ‘পোলার রাক্ষসরোগ’ নামক একটি নতুন তত্ত্ব পেশ করতে যাচ্ছেন।
এ ব্যাপারে জীববিজ্ঞানী মেরেডিথ সুয়েট এক ব্লগ পোস্টে জানান, বর্তমানে এসব প্রাণী বিশাল আকারের দিকে যাওয়া একটি রহস্য। একাধিক অনুমানের ওপর নির্ভর করে এখানে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। যদিও এর কোনোটিই এখনো পর্যন্ত কেউ প্রমাণ করতে পারেনি।’
মানুষের মুখের মত বড় আকৃতির এই সামুদ্রিক দানব মাকড়সা (যা কিনা প্রায় ১০ ইঞ্চি পর্যন্ত বড় এবং আরো বড় হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে) নিয়ে গবেষণা করতে গবেষকদের একটি দল অ্যান্টার্টিক সাগরের ঠাণ্ডা জমাটবাধা স্থানে গর্ত খুঁড়ে সেখানে কিছু মাকড়সার বাসস্থান বের করেছেন।
দক্ষিণ মেরুর পানি অত্যাধিক ঠাণ্ডা থাকে, ফলে এতে অক্সিজেন দ্রবীভূত থাকে। গবেষকরা সাগরে দ্রবীভূত এই উচ্চ মাত্রার অক্সিজেনকেই সাগর মাকড়সা এবং অন্যান্য সমুদ্রিক প্রাণীর বৃহাদার গঠনের জন্য দায়ী বলে দাবি করছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open