কথা বলেই আত্মহত্যা করতে যাওয়া যুবকের প্রাণ বাঁচালেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট

শুধু কথা বলেই আত্মহত্যা করতে চাওয়া এক যুবকের প্রাণ বাঁচালেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান। ‘পারিবারিক সমস্যা’ ও ‘মানসিক অশান্তির’ কারণে দেশটির একটি সেতু থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন ওই যুবক।
তুরস্কের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানায়, শুক্রবার দুপুরে ইস্তাম্বুলের বসফরাস প্রণালির সেতুর রেলিং পার হয়ে পানিতে লাফিয়ে পরে আত্মহত্যার চেষ্টা করছিলেন ওই যুবক। ঠিক সে সময়ই ইউরোপ এবং এশিয়াকে সংযোগকারী বিখ্যাত এই সেতুটি পার হচ্ছিলেন প্রেসিডেন্ট এরদোগান। উসকদার মসজিদে জুমা নামায শেষে প্রণালি পার হতে থাকা রাষ্ট্রপতি এরদোয়ান সেতুর রেলিংয়ের বাইরে ওই ব্যক্তিকে লক্ষ করেন। তিনি সঙ্গে সঙ্গেই তাঁর ব্যক্তিগত নিরাপত্তায় নিয়োজিত কর্মকর্তাদের ওই যুবককে থামাতে নির্দেশ দেন।
তুরস্কের টেলিভিশনে প্রচারিত ভিডিওতে দেখা যায়, প্রথমে অবিশ্বাস করলেও প্রেসিডেন্টের গাড়িবহর দেখে সেতুর রেলিং থেকে নেমে আসেন ওই যুবক। এরপর প্রেসিডেন্টের গাড়িবহরের দিকে এগিয়ে এসে গাড়ির জানালা দিয়ে স্থানীয় ঐতিহ্যমতে প্রেসিডেন্টের হাতে চুমুও খান তিনি।
এপি জানিয়েছে, এই ঘটনার সময় প্রেসিডেন্ট এরদোগান গাড়ি থেকে নামেননি। তবে তিনি মুঠোফোনে ওই ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলেছেন। এরদোগান ওই ব্যক্তিকে সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলেও জানিয়েছে দেশটির প্রেসিডেন্টের কার্যালয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open