‘ইতিহাস বিকৃতি’ রোধে আইন করতে চায় সরকার

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও এই সংশ্লিষ্ট ‘ইতিহাস বিকৃতি’ রোধে আইন করার কথা ভাবছে সরকার। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা পেলেই এই বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করবে আইন মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশ আইন সমিতির বার্ষিক সম্মেলন শেষে আজ শুক্রবার সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।
আজ শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী মোতাহার হোসেন ভবন চত্বরে বাংলাদেশ আইন সমিতির ৩০তম বার্ষিক সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের কাছে আই্নমন্ত্রী আনিসুল হক এসব কথা বলেন। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে সম্প্রতি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মন্তব্যের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এটা একটা নীতিনির্ধারণী ব্যাপার। এটা আমার ব্যক্তিগত ব্যাপার না যে আমি একটা ডিসিশন দিয়ে দেব। এ রকম একটা দাবি উঠেছে।’
আইনমন্ত্রীর দাবি, “এই সরকার হচ্ছে জনগণের সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হচ্ছেন জনগণের মানুষ। তিনি নিশ্চয়ই এটা বিবেচনা করবেন। বিবেচনার পরেই আমি কোনো বক্তব্য রাখতে পারব।”
এই আইনের বিষয়ে আইন কমিশন যদি সুপারিশ করে তবে সরকার অবশ্যই সেটা বিবেচনা করবে বলেও জানান আইনমন্ত্রী। কেউ যদি স্বাধীনতাবিরোধী বক্তব্য রাখে, স্বাধীনতাযুদ্ধ নিয়ে সন্দেহের কথা বলে বা ইতিহাস বিকৃত করার চেষ্টা করে তাহলে এর বিরুদ্ধে আইনজীবীদের শক্ত প্রতিবাদ করার আহ্বানও জানান মন্ত্রী।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open